mb

হবিগঞ্জে করোনা আক্রান্ত ১০ জনের চিকিৎসা বাড়িতে নাকি হাসপাতালে?

324

হবিগঞ্জে করোনা আক্রান্ত হওয়া ১০ জনের চিকিৎসা কোথায় হচ্ছে, বাড়িতে নাকি হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের আইসোলেশনে ? এখনও এর কোন সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ।

সিভিল সার্জন ডা. কেএম মুস্তাফিজুর রহমান জানিয়েছেন- আক্রান্ত ১০ জনের মধ্যে কেউই হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি নেই। বর্তমানে সবাই নিজ নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। তবে তাদের চিকিৎসার বিষয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি বলে জানান তিনি। তবে জেলা প্রশাসনের একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে- আক্রান্ত ১০ জনের মধ্যে ৮ জনকে বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা প্রদান করা হবে এবং শুধুমাত্র একজন চিকিৎসক ও একজন নার্সকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা দেয়া হবে। যদিও এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার নেয়া হবে বলে জানা যায়।

সোমবার রাত ১০টার দিকে হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন জানান- হবিগঞ্জে এক দিনেই ১০ জনের শরীরে ধরা পড়েছে মরণব্যধি করোনার অস্তিত্ব। নিমেষেই অনলাইন সংবাদ মাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে এ খবর চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে। সাথে ছড়িয়ে পরে আতঙ্কও। হঠাৎ করেই যেন মৃত্যুভয়ে স্তব্ধ হয়ে যায় পুরো জেলা।

new ads

জানা যায়- সোমবার সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে মোট ৮৮ জনের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে ৭৮ জনের ফলাফল নেগেটিভ আসলেও ১০ জনের শরীরে ধরা পড়ে করোনাভাইরাস। কাকতালীয়ভাবে করোনা সনাক্ত হওয়া ১০ জনের সবাই হবিগঞ্জ জেলায় বসবাসকারী। যদিও দুইজন কুমিল্লার, কিন্তু তারা ধান কাটার শ্রমিক হিসেবে হবিগঞ্জ জেলায় অবস্থান করছেন। এছাড়াও ১ জল চিকিৎসক ও একজন নার্সের শরীরে এই করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়।

আক্রান্তদের মধ্যে ৮ জন পুরুষ এবং ২ জন নারী রয়েছেন। এরমধ্যে লাখাই উপজেলায় ৩ জন, বানিয়াচং উপজেলায় ৩ জন, বাহুবল উপজেলায় ১ জন, আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় ২ জন ও চুনারুঘাট উপজেলায় ১ জন। ১৭, ১৮ ও ১৯ এপ্রিল যাদের নমুনা পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছিল তাদের মাঝে ১০ জনের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। এর মাঝে ২২ থেকে ৩২ বছরের মাঝে আছে ৭জন। ৪৫ বছরের ১জন, ৫৫ বছরের ১জন ও ৬৪ বছরের ১জন।

এদিকে, আক্রান্ত সকলেই বর্তমানে নিজ নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। ফলে এলাকার মধ্যে করোনা সংক্রামণের প্রবল ঝুঁকি থাকায় প্রত্যেকটি এলাকা লকডাউন করা হবে। পাশাপাশি লকডাউন কঠোর করতে ওই এলাকাগুলোতে ২৪ ঘন্টা পুলিশ মোতায়েন করা হবে বলেও জানান সিভিল সার্জন।

এর আগে ১১ এপ্রিল হবিগঞ্জে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত হয়।

10