কোম্পানীগঞ্জে বিদেশী মদ ও জকিগঞ্জে যাবজ্জীবন পলাতক আসামী গ্রেফতার

396

সিলেট জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর সার্বিক দিক-নিদের্শনায় জেলায় মাদক ও চোরাচালান বিরোধী অভিযান পরিচালনার অংশ হিসেবে সিলেট জেলার মাদক বিরোধী সেলের ইনচার্জ জনাব সজল কুমার কানুর নেতৃত্বে সঙ্গীয় অফিসার ফোর্সসহ একটি দল ১৯-০৯-২০১৯খ্রিঃ রাত ০৩.১০ ঘটিকায় কোম্পানীগঞ্জ থানাধীন বরমসিদ্দিপুর সাকিনে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে কোম্পানীগঞ্জ থানার ছড়ারপাড় (নোয়াগাও) গ্রামের আব্দুল বারীর পুত্র বাবুল মিয়া(৩৬) ও আইনুদ্দিন(৩০) এবং মাঝেরগাও গ্রামের আলাউদ্দিন ভারত হতে মাদকদ্রব্য বহন করে বরমসিদ্দিপুর সীমান্তে প্রবেশ করলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামীরা মাদকদ্রব্য ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ঘটনাস্থল হতে মাদক বিরোধী দলের সদস্য ০৩ টি বস্তা খুলে মোট ১০২ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েজ ও রয়েল ব্লু ব্রান্ডের মদ উদ্ধার করেন। এ সংক্রান্তে মাদক বিরোধী সেলের এসআই (নি:)/ মতিউর রহমান এর দাখিলকৃত এজাহারের ভিত্তিতে কোম্পানীগঞ্জ থানায় ২০১৮ সালের মাদক নিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬(১) টেবিল ২৪(খ)/৪১ ধারায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে মাদক বিরোধী সেলের অভিযান অব্যাহত আছে।


এদিকে জকিগঞ্জ থানা পুলিশ গত বুধবার রাত ০৯.৩০ ঘটিকার সময় জকিগঞ্জ থানাধীন মইয়াখালী রাস্তার পইলের ব্রীজের উপর হতে মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা থানার কুমারশাইল গ্রামের আব্দুল মুমিনের পুত্র আবু বক্কর @বাক্কই (৩৫) কে গ্রেফতার করে। সে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজার আসামী এবং ডাকাতি, ডাকাতির প্রস্তুতিসহ অস্ত্র মামলার পলাতক আসামী। বাক্কইকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
সিলেট জেলার পুলিশ সুপার বলেন, জেলার সীমান্তবর্তী কোন থানাকে মাদকের নিরাপদ রুট হিসেবে গড়ে উঠতে দেয়া হবে না এ জন্য জেলা পুলিশের এ চলমান অভিযান ভবিষ্যতে আরো জোরদার করা হবে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি