জকিগঞ্জে বিদেশী মদ ও কানাইঘাটে মোটরসাইকেল চোর চক্রেরর সদস্য আটক

94

মৌলভীবাজার২৪ ডট কমঃ সিলেট জেলার কানাইঘাট থানা এলাকায় মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর সার্বিক দিক-নিদের্শনায়  কানাইঘাট থানাধীন ১ নং লক্ষী প্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নের অন্তর্গত বাখালছড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ উদ্দিন এর ছেলে দুলাল আহমদ এর মোটরসাইকেল বসতঘর হতে চুরির পর উদ্ধারের জন্য কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শামছুদ্দোহা পিপিএম এর নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করেন।

কানাইঘাট থানা পুলিশের গঠিত টিম গোপনে ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টার দিকে সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর থানার মতুরাকান্দি বাজার হতে কানাইঘাট থানাধীন ডাইকেরগুল সাকিনের গুলাল আহমদ এর পুত্র মাছুম আহমদ (২০)কে আটক করতে সক্ষম হয়। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কানাইঘাট থানা পুলিশের গঠিত বিশেষ টিম চুরি হওয়া মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। আটক আসামী মাছুম আহমদকে কানাইঘাট থানায় রুজুকৃত নিয়মিত মামলায় বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরাপর সহযোগী আসামীদের গ্রেফতার কানাইঘাট থানা পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।
অপরদিকে সিলেট জেলার মাদক বিরোধী সেলের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক সজল কুমার কানু’র নেতৃত্বে সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ গত ১৬ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় জকিগঞ্জ থানাধীন মইয়াখালি কোনাগাও গ্রামে মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে জকিগঞ্জ থানার কোনারগাও সাকিনের মৃত নুর আলী মকা মিয়া এর পুত্র মাদক ব্যবসায়ী আলী হোসেন এর হেফাজতে থাকা ১০ বোতল অফিসার্স চয়েজ মদসহ গ্রেফতার করেন। উক্ত বিষয়ে এসআই (নি:)/রাজীব মন্ডল বাদী হয়ে জকিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে জকিগঞ্জ থানার মামলা নং-২০, তারিখ-১৬/০৯/২০১৯খ্রি: ধারা-২০১৮খ্রি: সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬ (১) টেবিল ২৪ (ক) রুজু করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন। আটক আসামীর বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একাধিক মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে।
সিলেট জেলার পুলিশ সুপার বলেন জেলায় মোটরসাইকেল চুরি, গাড়ী চুরি ও ছিনতাই রোধ এবং মাদক দ্রব্য নির্মূলে জেলা পুলিশের গঠিত বিশেষ টিমের সাড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে।

কানাইঘাট থানা এলাকায় মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর সার্বিক দিক-নিদের্শনায় গত (২ সেপ্টেম্বর) কানাইঘাট থানাধীন ০১ নং লক্ষী প্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নের অন্তর্গত বাখালছড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ উদ্দিন এর ছেলে দুলাল আহমদ এর মোটরসাইকেল বসতঘর হতে চুরির পর উদ্ধারের জন্য কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শামছুদ্দোহা পিপিএম এর নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করেন।
কানাইঘাট থানা পুলিশের গঠিত টিম গোপনে ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টার দিকে সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর থানার মতুরাকান্দি বাজার হতে কানাইঘাট থানাধীন ডাইকেরগুল সাকিনের গুলাল আহমদ এর পুত্র মাছুম আহমদ (২০)কে আটক করতে সক্ষম হয়। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কানাইঘাট থানা পুলিশের গঠিত বিশেষ টিম চুরি হওয়া মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। আটক আসামী মাছুম আহমদকে কানাইঘাট থানায় রুজুকৃত নিয়মিত মামলায় বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরাপর সহযোগী আসামীদের গ্রেফতার কানাইঘাট থানা পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।
অপরদিকে সিলেট জেলার মাদক বিরোধী সেলের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক সজল কুমার কানু’র নেতৃত্বে সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ গত ১৬ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় জকিগঞ্জ থানাধীন মইয়াখালি কোনাগাও গ্রামে মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে জকিগঞ্জ থানার কোনারগাও সাকিনের মৃত নুর আলী মকা মিয়া এর পুত্র মাদক ব্যবসায়ী আলী হোসেন এর হেফাজতে থাকা ১০ বোতল অফিসার্স চয়েজ মদসহ গ্রেফতার করেন। উক্ত বিষয়ে এসআই (নি:)/রাজীব মন্ডল বাদী হয়ে জকিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে জকিগঞ্জ থানার মামলা নং-২০, তারিখ-১৬/০৯/২০১৯খ্রি: ধারা-২০১৮খ্রি: সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬ (১) টেবিল ২৪ (ক) রুজু করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন। আটক আসামীর বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একাধিক মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে।
সিলেট জেলার পুলিশ সুপার বলেন জেলায় মোটরসাইকেল চুরি, গাড়ী চুরি ও ছিনতাই রোধ এবং মাদক দ্রব্য নির্মূলে জেলা পুলিশের গঠিত বিশেষ টিমের সাড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সিলেট জেলার কানাইঘাট থানা এলাকায় মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর সার্বিক দিক-নিদের্শনায় গত (২ সেপ্টেম্বর) কানাইঘাট থানাধীন ০১ নং লক্ষী প্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নের অন্তর্গত বাখালছড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ উদ্দিন এর ছেলে দুলাল আহমদ এর মোটরসাইকেল বসতঘর হতে চুরির পর উদ্ধারের জন্য কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শামছুদ্দোহা পিপিএম এর নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করেন।

কানাইঘাট থানা পুলিশের গঠিত টিম গোপনে ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টার দিকে সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর থানার মতুরাকান্দি বাজার হতে কানাইঘাট থানাধীন ডাইকেরগুল সাকিনের গুলাল আহমদ এর পুত্র মাছুম আহমদ (২০)কে আটক করতে সক্ষম হয়। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কানাইঘাট থানা পুলিশের গঠিত বিশেষ টিম চুরি হওয়া মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। আটক আসামী মাছুম আহমদকে কানাইঘাট থানায় রুজুকৃত নিয়মিত মামলায় বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরাপর সহযোগী আসামীদের গ্রেফতার কানাইঘাট থানা পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

অপরদিকে সিলেট জেলার মাদক বিরোধী সেলের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক সজল কুমার কানু’র নেতৃত্বে সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ গত ১৬ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় জকিগঞ্জ থানাধীন মইয়াখালি কোনাগাও গ্রামে মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে জকিগঞ্জ থানার কোনারগাও সাকিনের মৃত নুর আলী মকা মিয়া এর পুত্র মাদক ব্যবসায়ী আলী হোসেন এর হেফাজতে থাকা ১০ বোতল অফিসার্স চয়েজ মদসহ গ্রেফতার করেন। উক্ত বিষয়ে এসআই (নি:)/রাজীব মন্ডল বাদী হয়ে জকিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে জকিগঞ্জ থানার মামলা নং-২০, তারিখ-১৬/০৯/২০১৯খ্রি: ধারা-২০১৮খ্রি: সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬ (১) টেবিল ২৪ (ক) রুজু করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন। আটক আসামীর বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একাধিক মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে।

সিলেট জেলার পুলিশ সুপার বলেন জেলায় মোটরসাইকেল চুরি, গাড়ী চুরি ও ছিনতাই রোধ এবং মাদক দ্রব্য নির্মূলে জেলা পুলিশের গঠিত বিশেষ টিমের সাড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে।