মৌলভীবাজারে কোরবানীর পশুর চামড়া মাটিতে পুঁতে ফেলা হয়েছে

522

মৌলভীবাজার২৪ ডট কমঃ মৌলভীবাজারে কোরবানীর পশুর চামড়া রাস্তায় পঁচে নষ্ট হয়েছে। বিনামূল্যেও নিচ্ছে না কেউ। এ নিয়ে বিপাকে পড়েছেন চামড়া সংগ্রহকারীরা, ছালাই কর্মী ও মাদরাসা ও এতিমখানা কর্তৃপক্ষ। চামড়া বিক্রি করতে না পেরে চামড়া নদীতে ফেলে দেন তারা। অন্যরা মাটিতে পুঁতে রেখেছেন। রাস্তায় ফেলে রাখা পচাঁ চামড়া অপসারণে পৌরসভার পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা মনু নদীর তীরে গর্ত করে চামড়া মাটি চাপা দিচ্ছে। পোস্তার আড়তদার ও ট্যানারি মালিকরা সিন্ডিকেট করার কারণে এমনটাই হয়েছে বলে স্থানীয় চামড়া ক্রেতাদের অভিযোগ।

মৌলভীবাজার জেলায় এবার অধিকাংশই কোরবানির পশুর চামড়ার ক্রেতা পাওয়া যায়নি। ফলে বাধ্য হয়ে ঈদের পরের দিন চামড়া মাটিতে পুঁতে ফেলেছেন কোরবানিদাতারা। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চামড়া বিক্রি করতে না পারায় সৃষ্টি হয়েছে নানা বিড়ম্বনার।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মৌলভীবাজার যুগিডহর এলাকায় পৌর বাস টার্মিনালে ঈদের দিন দুপুর থেকে কোরবানির চামড়া নিয়ে আসেন অনেক কোরবানিদাতা। সারাদিন অপেক্ষা করে কোনও ক্রেতা না পাওয়াতে চামড়াগুলো বাস টার্মিনালে ফেলে চলে যান তারা। ঈদের পরের দিন চামড়ায় পচন ধরা শুরু করলে পৌরসভার মেয়র মো. ফজলুর রহমান পরিচ্ছন্নতা-কর্মী দিয়ে মাটিতে গর্ত করে চামড়াগুলো পুঁতে ফেলেন।

পৌরমেয়র মো.ফজলুর রহমান বলেন, ‘পৌর বাস টার্মিনালে কোনও ক্রেতা-বিক্রেতা না পাওয়াতে বাধ্য হয়ে মনু নদীর পার ও পৌরসভার ডাম্বিং এলাকার মাটিতে গর্ত করে কয়েকশ’ গরু ও খাসির চামড়া পুঁতে ফেলা হয়েছে।’ এই সংখ্যা সব মিলিয়ে প্রায় সাতশ’-আটশ’ হবে বলেও জানান তিনি।