পাকিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টার্গেট ৩১৬

55

বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি পাকিস্তানের। কিন্তু পরে ঘুরে দাড়ায় পাকিস্তান। ধীরে ধীরে ঘুরতে থাকে রানের চাকা। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তানের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৩১৫ রান।

জিততে হলে বাংলাদেশকে করতে হবে ৩১৬ রান। সেঞ্চুরি করেছেন ওপেনার ইমাম উল হক। ৪ রানের জন্য সেঞ্চুরিবঞ্চিত হন বাবর আজম। ব্যাক টু ব্যাক ম্যাচে মোস্তাফিজ পাঁচটি উইকেট নেন। সাইফউদ্দিন তিনটি উইকেট তুলে নেন।

পাকিস্তানের সামনে একটা ক্ষিণ আশা রয়েছে সেমিফাইনালে যাওয়ার। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ড জিতে সেমিফাইনালে পৌঁছে যেতেই পাকিস্তানের আশা প্রায় শেষ হয়ে যায়।

শুক্রবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে পাকিস্তানকে বড় ব্যবধানে জিততে হবে, তবেই সেমিফাইনালের আশা থাকবে। ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচে এ কারনেই গোটা পাকিস্তান তাকিয়ে ছিল ভারতের দিকে। সেই স্বপ্নও সফল হয়নি তাদের।

এবার ১৯৯২-এর চ্যাম্পিয়নদের সামনে এখন শুধু নিজেদের সেরাটা দিয়ে বড় রান করার লক্ষ্য। সঙ্গে বাংলাদেশকে দ্রুত আউট করার। বাংলাদেশের আশা ভারতের কাছে হেরে আগেই শেষ হয়ে গিয়েছিল। বাংলাদেশের আর পাওয়ার কিছু নেই। কিন্তু জিতে শেষ করতে চাইবে।

এই বিশ্বকাপে তারাও একটা সময় আশা জাগিয়েছিল। বড় দলকে সমস্যায় ফেলেছে। এই অবস্থায় দুই দলের কাছেই লড়াইটা কমবেশী আত্মসম্মানের সঙ্গে বিশ্বকাপকে বিদায় জানানোর।

বাংলাদেশ একাদশ: মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

পাকিস্তান একাদশ: সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), বাবর আজম, ফখর জামান, হারিস সোহেল, ইমাদ ওয়াসিম, ইমাম-উল-হক, মোহাম্মদ হাফিজ, শাদাব খান, শাহীন শাহ আফ্রিদি, মোহাম্মদ আমির এবং ওয়াহাব রিয়াজ