দেহরক্ষীর হাতেই খুন হলেন ইথিওপিয়ার সেনাপ্রধান

72

ইথিওপিয়ায় গুলিবিদ্ধ সেনাপ্রধান সিয়ারে মেকননেন নিহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে দেশটির প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদের কার্যালয়। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস অফিসের বিবৃতিতে জানানো হয়, আমহারা অঞ্চলে একটি অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা প্রতিহত করার চেষ্টার সময় আদ্দিস আবাবায় দেহরক্ষীর হাতে গুলিবিদ্ধ হন মেকননেন

 এর আগে, ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে সেনাপ্রধানের গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর জানালেও তখন তিনি জীবিত আছেন না মারা গেছেন সে ব্যাপারে কিছু উল্লেখ করেননি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, আমহারায় অস্থিরতা চলার মধ্যে অঞ্চলটির গভর্নর আম্বাচিউ মেকননেন ও তার উপদেষ্টাও নিহত হয়েছেন। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে আছে বলে জানিয়েছে ইথিওপিয়ার সরকার।

ইথিওপিয়ায় হিলিমারীম দেশলেগনের পদত্যাগের পর সাবেক সেনা কর্মকর্তা আবি ক্ষমতায় আসেন ২০১৮ সালের এপ্রিলে। তখন থেকেই দেশটির রাজনৈতিক হালচালে বড় ধরনের পরিবর্তন আসে। আবি সরকার শত শত রাজনৈতিক বন্দিকে মুক্তি দিতে থাকেন। একই সঙ্গে নিষিদ্ধ কিছু ওয়েবসাইট খুলে দেন।

রবিবার সকালে সামরিক পরিচ্ছদ পরিহিত প্রধানমন্ত্রী আবি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের মাধ্যমে দেশবাসীকে জানান, একদল ‘ভাড়াটে সেনা’ সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল সিয়ারে মেকননেনের ওপর হামলা চালিয়েছে। তবে তিনি নিহত হয়েছেন কিনা তা তখন পর্যন্ত নিশ্চিত করেননি আবি। পরে তার প্রেস অফিসের বিবৃতিতে মেকননেনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়। জানানো হয়, নিজের দেহরক্ষীর হাতে সেনাপ্রধান নিহত হয়েছেন। আমহারার উত্তেজনা চলার সময় অঞ্চলটির গভর্নর এবং তার জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ইজেজ ওয়াসি নিহত ও অঞ্চলের অ্যাটর্নি জেনারেল আহত হয়েছেন বলে উল্লেখ করা হয় বিবৃতিতে। ঘটনার পর লাকে আয়ালিউকে আমহারার ভারপ্রাপ্ত গভর্নর হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বিবৃতিতে আরও অভিযোগ করা হয়েছে, আমহারার আঞ্চলিক নিরাপত্তা প্রধান আসামিনিউ তোসিগে ওই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার পরিকল্পনা করেছিলেন। তবে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে কিনা তা জানা যায়নি।

রবিবার আবির প্রেস সচিব নেগুসু তিলাহুন বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, ব্যর্থ অভ্যুত্থানের কয়েক ঘণ্টা পর সেনাবাহিনী প্রধান গুলিবিদ্ধ হন। অভ্যুত্থানের ষড়যন্ত্রকারীরা আমহারা রাজ্য সরকারের প্রধান আম্বাকিউ মেকননেনকে ক্ষমতাচ্যুত করার উদ্যোগ নিয়েছিল বলে দাবি করেন তিনি। ষড়যন্ত্রকারীদের ধরার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও জানান আবি’র প্রেস সচিব।

এ ঘটনার পর ইথিওপিয়ায় ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়েছে