জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ প্রতিযোগিতায় সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক নির্বাচিত হলেন শ্রীমঙ্গলের কামরুল

254

এহসান বিন মুজাহির : জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৯’র প্রতিযোগিতায় এবার সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক নির্বাচিত হলেন মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের
মোহাজেরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামরুল হাছান। বৃহস্পতিবার ৪ এপ্রিল দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিলেট আঞ্চলিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক প্রফেসর হারুনুর রশিদ।

এর আগে তিনি ২১ মার্চ জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৯ এ উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক (বিদ্যালয়) নির্বাচিত হন। ভিক্টোরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে তাঁর হাতে সনদপত্র তুলে দেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৯ উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব দীলিপ কুমার বর্ধন। এরপর গত ২৫ মার্চ সোমবার জেলা পর্যায়ে মৌলভীবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান (শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক) বিদ্যালয় নির্বাচিত হয়ে ক্রেস্টসসহ শিক্ষাপদক অর্জন করেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের কাছ থেকে।

কামরুল হাছান কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মনপাড়া থানাধীন পোমকাড়া গ্রামের মৃত মোঃ ইব্রাহিম মিয়ার বড় পুত্র। তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে এমএ ফাস্ট ক্লাস পেয়ে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন। বর্তমানে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ এবং শিক্ষক ফোরাম শ্রীমঙ্গলের সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি ১৯৮৭ সাল থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত কুমিল্লার বিভিন্ন স্কুলে শিক্ষকতা করেন। ২০০০ সালে শ্রীমঙ্গল উপজেলার মোহাজেরাবাদ গ্রামের জনাজীর্ন অবস্থায় এবং অনুমতিহীন মোহাজেরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান করেন এবং বিশ বছর যাবত একই প্রতিষ্ঠানে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব সততা-নিষ্ঠার সাথে পালন করছেন।

কামরুল হাছান কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মনপাড়া থানাধীন পোমকাড়া গ্রামের মৃত মোঃ ইব্রাহিম মিয়ার বড় পুত্র। তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে এমএ ফাস্ট ক্লাস পেয়ে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন। বর্তমানে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ এবং শিক্ষক ফোরাম শ্রীমঙ্গলের সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক (বিদ্যালয়) নির্বাচিত হওয়ায় আন্তরিক ধন্যবাদ ও প্রাণঢালা অভিনন্দন জানিয়েছেন কাকিয়া বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নোমান আহমদ সিদ্দিকী, শ্রীমঙ্গল আইডিয়াল স্কুল’র প্রিন্সিপাল এহসান বিন মুজাহিরসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।