নায়িকাদের এমপি হওয়ার স্বপ্নভঙ্গ

204

নায়িকাদের এমপি হওয়ার স্বপ্নভঙ্গ। স্বপ্ন ছিল এমপি হবেন। জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে বসবেন। এরপর নিজেকে ব্যস্ত করবেন দেশসেবায়।

তবে সে স্বপ্নে গুড়ে বালি। চলচ্চিত্র ও ছোট পর্দার নায়িকারা হতাশ। কিন্তু মাঝখান দিয়ে এমপি হয়ে গেছেন আলোচিত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা।

গত শুক্রবার একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের ৪১ জন প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে সংসদের সংখ্যাগরিষ্ঠ দল আওয়ামী লীগ।

শোবিজের অনেক নায়িকাই আওয়ামী লীগের সংরক্ষিত মহিলা আসনে এমপি হতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তাদের সে চাওয়া অপূর্ণই থেকে গেল। নায়িকাদের অনেকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এবারের জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন পাওয়ার লক্ষ্যে নায়িকাদের দৌড়ঝাঁপ ছিল বেশ লক্ষণীয়। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের ক্ষমতায় আসার পূর্বাভাস পেয়ে কিছুদিন থেকেই সিনেমা ও নাটকপাড়ার নায়িকারা ভিড় করেন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ও মন্ত্রিপাড়ায়।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিশাল বিজয় অর্জন করে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগ এবার ৪৩ জন মহিলাকে সংরক্ষিত আসনে এমপি করবে-এমন খবরে নায়িকাদের মনে ঢেউ উঠে আওয়ামী লীগের মনোনয়নযুদ্ধে অংশ নেয়ার প্রত্যাশায়।

এমনকি বিএনপি-জামায়াত শাসনামলে যারা ছিলেন জাসাস বা জিসাসে সক্রিয়, ছিলেন হাওয়া ভবনের মুখ, সেই নায়িকারাও রাতারাতি জার্সি বদলে আওয়ামী লীগ হয়ে দলের মহিলা এমপি হওয়ার দৌড়ে নেমেছিলেন। এ কারণে এফডিসি ও নাট্যপাড়া হয়ে পড়েছিল নায়িকাশূন্য। সবাই নেতাদের বাড়িতেই নয়, দলের কার্যালয়েও নিয়মিত ভিড় জমিয়েছেন ব্যাপকভাবে। শুটিংয়ে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না তাদের।

এবার জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য হওয়ার লক্ষ্যে নায়িকাদের মধ্যে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন সুজাতা, কবরী, দিলারা, নূতন, রোকেয়া প্রাচী, শমী কায়সার, মৌসুমী, অরুণা বিশ্বাস, অপু বিশ্বাস,সাহারা, শাহনূর, তারিন জাহান, জ্যোতিকা জ্যোতি, সুইটি, মিষ্টি জান্নাতসহ পার্শ্ব চরিত্রের বেশ ক’জন অভিনেত্রী, টিভি ও র‌্যাম্প মডেল।